ফ্যাশনে বসন্ত–গ্রীষ্মের পোশাক

জুরহেমের ফ্যাশন শোতে চেয়ারম্যান সাদাত চৌধুরী (তালি দিচ্ছেন)

জুরহেমের ফ্যাশন শোতে চেয়ারম্যান সাদাত চৌধুরী (তালি দিচ্ছেন)চমক জাগিয়ে শেষ হলো ফ্যাশন হাউস জুরহেমের ‘স্প্রিং–সামার ২০১৯ ফ্যাশন শো’। দেশি সংস্কৃতির সঙ্গে পশ্চিমা জনপ্রিয় একটি ধারার অনুপ্রেরণায় নকশা করা হয় প্রদর্শিত পোশাকগুলোর।

জুরহেমের ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর মেহরুজ মুনির নিজের নকশা করা পোশাকে

জুরহেমের ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর মেহরুজ মুনির নিজের নকশা করা পোশাকে

 বলরুমে আয়োজন করা হয় এই ফ্যাশন শোয়ের, যেখানে শুরুতেই দর্শকদের বেশ কয়েকটি চমক দেন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান সাদাত চৌধুরী। তিনি জানান, ইতালির বিখ্যাত জেনিয়া কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি হয়েছে জুরহেমের। তাই জুরহেমের বিভিন্ন পোশাকে এখন থেকে জেনিয়ার কাপড় দেখা যাবে। একই সঙ্গে এটাও জানা যায়, এখন থেকে জুরহেমে ছেলে ও মেয়েদের নানা নকশার জুতাও পাওয়া যাবে।

পোশাকে ছিল চমকউদ্বোধনী উপস্থাপনার পর শুরু হয় মূল পর্ব—ফ্যাশন শো, যেখানে ৪২ জন মডেল জুরহেমের পোশাক ও জুতা পরে রানওয়েতে হাঁটেন । জুরহেমের ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর মেহরুজ মুনিরের নকশা করা এসব পোশাকের মূল ভাবনাই ছিল দেশীয় ঐতিহ্য রিকশাচিত্রের সঙ্গে অ্যান্ডি ওয়ারহলের পপআপ আর্টের মিশ্রণ। বরাবরের মতো ছেলে ও মেয়েদের পশ্চিমা ধাঁচের এসব পোশাক মুগ্ধ করে দর্শকদের।

সাদাত চৌধুরী বলেন, ‘বরাবরই আমরা ক্রেতাদের আন্তর্জাতিক মানের পোশাক সরবারহের চেষ্টা করি। এবারের স্প্রিং–সামার কালেকশনেও সেই ধারা বজায় রাখার চেষ্টা করেছি। ঈদের আগে ছেলেদের পাঞ্জাবিতেও এমন নকশা দেখা যাবে।’ জুরহেমের নতুন দোকান চালু হয়েছে বনানীর ১২ নম্বর রোডের ৪৪ নম্বর বাড়িতে। এখন থেকে প্রতিষ্ঠানটির করা সব ধরনের পোশাকই মিলবে এখানে।

Share your vote!


Do you like this post?
  • Fascinated
  • Happy
  • Sad
  • Angry
  • Bored
  • Afraid
Facebook Comment