গরমে ছেলেদের সিম্পল ফ্যাশন

গরমে ছেলেদের ফ্যাশন

চোখ রাঙাচ্ছে সূর্য! ছেলেদের ফ্যাশনের ফুরফুরে দিনগুলো এখন শুধুই স্মৃতি। দিন বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে দ্রুত বাড়তে শুরু করে তাপমাত্রা। এই গরমে নিজেকে টেকানোই দায়, তাই বলে ফ্যাশন তো আর থেমে থাকতে পারে না! তাই আজই জেনে নিন আপনার পোশাক কেমন হলে স্টাইলের পাশাপাশি আরামও পাবেন-
গরমে কটকটে বা গাঢ় কোনো রং অসহ্য মনে হয়। তাই অধিকাংশ ছেলেরা গরমে বেছে নেন সাদা রঙের পোশাক। সাদার ছড়াছড়ি দেখে মনে হয়, এটা বুঝি জাতীয় রঙ! হালকা রঙ বলতে শুধু সাদা রঙ কেন বরং ঘিয়া, আকাশী, হালকা সবুজ, বাদামি, পার্পলসহ যেকোনো সহনশীল রঙ বেছে নিতে পারেন পোশাকে। গরমে গাঢ় রঙ যে পরাই যাবে না, এমনটা নয়। কালো এবং কালচে শেডের রঙগুলো বাদে যেকোনো রঙেই রাঙাতে পারেন নিজের গরমকাল!
গরমে রঙের চেয়ে বেশি প্রাধান্য দিন পোশাকের কাপড়ের ওপর। ছেলেরা যেহেতু দিনের বেশির ভাগ সময় বাইরে কাটান তাই আরামদায়ক ফ্রেবিকের কথা মাথায় রাখুন। সেক্ষেত্রে সুতির চেয়ে আরামদায়ক আর কিছুই হতে পারে না। সুতি বা তাঁতে তৈরি কাপড়ের পোশাক হতে পারে আপনার স্বস্তিদায়ক গরমের সঙ্গী।
টাইট প্যান্ট ফিটিং শার্ট আর যাই হোক গরমের পোশাক হতে পারে না। ট্রেন্ডি ওয়ার্ল্ডের ছেলেরা গরমের ট্রেন্ড হিসেবে বেছে নিতে পারেন ঢিলেঢালা কার্গো বা থ্রি-কোয়ার্টার এবং সঙ্গে হাফ হাতা শার্ট বা টিশার্ট। ব্লক, বাটিক বা টাইডাই করা সুতির হাফ হাতা শার্ট চলতে পারে ফ্যাশনের ট্রেন্ডে। পরতে পারেন ফতুয়াও। জিন্সের ক্ষেত্রে ন্যারো কাটের বদলে স্ট্রেইট কাটের জিন্স হোক এবার আপনার নিউ লুক! আরামের জন্য বেছে নিতে পারেন গ্যাবার্ডিনের প্যান্টও।
যারা চাকরি করেন এই গরমে পোশাকে ব্যাপারে তাদের মাথায় রাখতে হবে অনেক কিছুই! পোশাক হতে হবে এমন যাতে আপনিও স্বাচ্ছন্দ্যে থাকেন আবার ক্লায়েন্টও অস্বস্তিবোধ না করে। পরতে পারেন হাফহাতা সুতি বা ব্লকের শার্ট, পোলো শার্ট অথবা ফতুয়া সঙ্গে স্ট্রেইট কাটের জিন্স। কিন্তু অফিস যদি আপনার এই ক্যাজুয়াল লুক মানতে না চায়, তাহলে আর কী করা! পরতে হবে সেই ফরমাল পোশাকই! তবে খেয়াল রাখুন শার্টের কাটিং যেন আপনার জন্য আরামদায়ক হয়। এক্সক্লুসিভ বা বেশি দামের শার্ট যত সুন্দরই হোক না কেন, এই গরমে তা স্বস্তি দেবে না মোটেও। প্যান্টের বেলায় বেছে নিতে পারেন গাঢ় ধূসর, হালকা ধূসর, অফহোয়াইট, বাদামি বা বিস্কিট রং। এই রঙের প্যান্টগুলো পরতে পারবেন যেকোনো শার্টের সঙ্গে। শার্ট পরতে পারেন একরঙা বা সুতির চেক।
গরমের সময় উত্‍সবের পোশাক বলতে ফতুয়া বা পাঞ্জাবীই প্রাধান্য পায় বেশি। হাতের কাজ করা ফতুয়া বা পাঞ্জাবী হতে পারে আপনার উত্‍সবের পোশাক। সঙ্গে পরুন জিন্স বা একরঙা ট্রাউজার। এতে গরমে যেমন আরাম পাবেন, তেমনি আপনাকে দেখে চোখ জুড়াবে সবার!
রোদে যাওয়ার আগে একটা রোদচশমা পরে নিন। বডি স্প্রে (সুগন্ধি) লাগিয়ে নিলে ঘামের গন্ধ নিয়ে চিন্তা থাকবে না। একটা ছোট তোয়ালে বা রুমাল সঙ্গে রাখুন। পানির বোতল থাকতে পারে সঙ্গে। টি-শার্ট তো গরমেই উপযুক্ত পোশাক। পায়ে থাকতে পারে মোকাসিন বা স্নিকার। কেউ আরাম পেলে দুই ফিতার স্যান্ডেলও পরতে পারে।
Share your vote!


Do you like this post?
  • Fascinated
  • Happy
  • Sad
  • Angry
  • Bored
  • Afraid
Facebook Comment